নোয়াখালীতে ‘বোরকা খুলে’ ক্লাস করার নোটিশ, শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
শ্রেণিকক্ষে বোরকা খুলে ক্লাস করতে হবে—এমন নোটিশ জারি করায় নোয়াখালীর সেনবাগের ৭ নম্বর মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের শের-ই বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদত্যাগ দাবিতে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

সোমবার (২১ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও এলাকার মুসলিম তৌহিদি জনতার ব্যানারে উপজেলার সেবারহাট বাজারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মো. ফয়েজ উল্যাহ নামের এক অভিভাবক জাগো নিউজকে বলেন, ৯০ শতাংশ মুসলমানের দেশে ইসলামবিরোধী কোনো কার্যক্রম এবং সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নেবো না। প্রধান শিক্ষক পদত্যাগ না করলে আগামীতে আরও কঠোর কর্মসূচির হুমকি দেন তিনি।

এ বিষয়ে শের-ই বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোজাম্মেল হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘বিদ্যালয়ে বোরকা নিষিদ্ধ করা হয়নি। গত ৯ মার্চ এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ছাত্রীরা শ্রেণিকক্ষে বোরকা খুলে ক্লাস করবে। আবার বাড়ি ফেরার পথে বোরকা পরে বাড়ি ফিরবে। কিন্তু ১০ মার্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সিন্ধান্ত মোতাবেক ওই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়। তৃতীয় কোনো পক্ষের ইন্ধনে এ মানববন্ধন করা হয়েছে।’

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জাগো নিউজকে বলেন, ‘বোরকা নিষিদ্ধ করা হয়নি। বলা হয়েছে ক্লাসে ঢুকতে হবে বোরকা খুলে অথবা মুখ খুলে ঢুকতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘অনেক সময় মেয়েদের বোরকা ছেলেরা পরে আসে, আবার মেয়ে যেটা স্টুডেন্ট সেটা না এসে আরেকটা আসতে পারে। এছাড়া জামায়াত-শিবিরের কর্মীরাও বোরকা পরে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে।’

আগামী ২৭ মার্চ কমিটির সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জানানোর পর মানববন্ধনকারীরা সরে যান বলেও জানান ওসি।