‘হিন্দু মেয়েদের স্পর্শ করলে হাত কেটে নেব’

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

এই আমার দেশ ডেস্ক : এর আগেও একাধিকবার বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনন্ত কুমার হেগড়ে। ফের বিতর্কিত এক মন্তব্য করলেন ভারতীয় এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

রবিবার ভারতের কর্ণাটকের কোদাউগু জেলার সোমরপেট এলাকার মাদাপুরা গ্রামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হিন্দু জাগরণ বেদিকে নামে একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। সেখানে যোগ দেন উত্তর কর্নাটকের পাঁচ বারের বিজেপি সাংসদ অনন্তকুমার হেগড়ে। সেখানেই তিনি বলেন, ‘কেউ হিন্দু মহিলাদের গায়ে হাত দিলে তাঁর হাত কেটে নেওয়া হবে।’

এছাড়া তিনি সেসময় তাজমহলেরও বিতর্কিত ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, ‘তাজমহল আগে হিন্দু শিবমন্দির ছিল। রাজা পরমতীর্থ সেই মন্দির নির্মাণ করে নাম দিয়েছিলেন ‘তেজো মহালয়’। সেটাই পরে তাজমহল হয়ে যায়।’

এরপর তিনি আরো উস্কানি মূলক কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘এ ভাবে যদি আমরা ঘুমিয়ে থাকি, তাহলে একদিন আমাদের বাড়িঘরের নামও বদলে হয়ে যাবে মসজিদ। রামকে জাহাপনা বলে ডাকা হবে। সীতা হয়ে যেতে পারেন বিবি।’

তবে কেন্দ্রীয় এই মন্ত্রীর এমন বক্তব্যের কড়া নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির রাজনৈতিক মহলের অনেকে। কর্ণাটক প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি দীনেশ গুন্ডু রাও এর তীব্র প্রতিবাদ জানান।

গুন্ডু রাও টুইটারে লেখেন, ‘এটা ওর (হেগড়ে) সাংস্কৃতিক বোধবুদ্ধির অভাব। উনি হিন্দু সংস্কৃতি থেকে কিছুই শিক্ষা নেননি।’ গুন্ডু রাও আরও লেখেন, ‘সময় ফুরিয়ে যায়নি। উনি এখনও সম্মাননীয় ব্যক্তি হতে পারেন।’