হরিণাকুন্ডুতে পাওনা টাকা চাওয়ায় গৃহবধুকে কুপিয়ে যখম

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার রঘুনাথপুর ইউনিয়নের ভবিতপুর গ্রামে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ফরিদা খাতুন (৩৮) নামের এক গৃহবধুকে কুপিয়ে যখম করেছে প্রতিবেশীরা। আহত গৃহবধু ওই গ্রামের এলেম মালিতার স্ত্রী। সে বর্তমানে ঝিনাইদহ সদর হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গৃহবধুর স্বামী এলেম মালিতা জানান, গ্রামের এনামুল মালিতার কাছে জমি ক্রয় সংক্রান্ত ৩০ হাজার টাকা পান তিনি। বিভিন্ন সময় টাকা ফেরত চাইলে তালবাহানা করে সেই সাথে হত্যার হুমকিও দিয়ে আসছিল। গত বৃস্পতিবার আমি বাড়িতে ছিলাম না। রাত ৮ টার দিকে আমার স্ত্রী ফরিদা খাতুন এনামুলের কাছে পাওনা টাকা ফেরত চাইলে সে, তার ছেলে রাজীব মালিতা ও স্ত্রী লাবনী খাতুন মিলে ফরিদা খাতুনকে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে গুরতর যখম করে। তারা ঘরে থাকা আরও ৩০ হাজার টাকা লুট করে নেয়। রাতে ফরিদা খাতুনকে উদ্ধার করে প্রথমে হরিণাকুন্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করে চিকিৎসক।

এ ঘটনায় হরিণাকুন্ডু থানার এস আই সরোয়ার হোসেন জানান, গৃহবধু ফরিদাকে মারধরের ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।