শুরুতে সৌম্য, মাঝে চার্লস, শেষে জঙ্কারের ব্যাটে সুরের ঝংকার

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

এই আমার দেশ ডেস্ক : শুরুটা ভালোই করেছিলেন সৌম্য। কিন্তু পারেননি ইনিংসটা লম্বা করতে। তবে ভালো সূচনা পাওয়া রাজশাহী শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১৯৮ রানের বড় স্কোরই গড়েছে।

কদিন ধরে সৌম্য সরকারের ফর্ম নিয়ে অনেক কথাই হচ্ছে। বিপিএলটা খুব বাজে যাচ্ছে বাঁ হাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের। আজ সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার লক্ষ্যেই যেন শুরু করেছিলেন সৌম্য।

শুরুটাও মন্দ নয়। চিটাগং ভাইকিংসের’ নাঈম হাসান আর খালেদ আহমেদকে যেভাবে বাউন্ডারি মারছিলেন, মনে হচ্ছিল আজ রাতটা বোধ হয় সৌম্যর। কিন্তু হলো না। খালেদকে তুলে মারতে গিয়ে টাইমিংয়ে গড়বড়, লং অফে মুশফিকের ক্যাচ হওয়ার আগে করতে পারলেন ৫ বাউন্ডারিতে ২০ বলে ২৬ রান। তবে সৌম্যর সৌজন্যে পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেটে ৫০ রান করতে পেরেছে রাজশাহী। ভালো শুরু করে আফসোসটা আরও বাড়িয়েছেন বাঁ হাতি ওপেনার। যদি অন্তত আরও পাঁচটা ওভার থাকতে পারতেন নিশ্চিত ইনিংসটা অনেক লম্বা হতো।

সৌম্য আউট হলেও উদ্বোধনী জুটিতে তাঁর ক্যারিবীয় সঙ্গী জনসন চার্লস ফিফটি করেই ফিরেছেন। চার্লস-লরি ইভানসের দ্বিতীয় উইকেট জুটি যোগ করেছে ৫৪ বলে ৭০ রানের জুটি। শেষ দিকে রায়ান টেন ডেসকাট আর ক্রিস্টিয়ান জঙ্কারের ঝড়ে রাজশাহী পেয়েছে চ্যালেঞ্জিং স্কোর। ডেসকাট তো নাঈমের করা ১৬ তম ওভারে ছক্কার হ্যাটট্রিকই করলেন!

ডেসকাট ১২ বলে ২৭ করে রানআউট হলে জঙ্কার ব্যাটে সুরের ঝংকার তুলেছেন! প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান ১৭ বলে আউট হওয়ার আগে করেছেন ৩৭ রান। রবিউল হকের করা শেষ ওভারেই রাজশাহী তুলেছে ২৪ রান। পর পর দুই ‘বিমার’ দেওয়ার অপরাধে রবিউল হক নিষিদ্ধ হয়েছেন ইনিংসের আর দুই বল বাকি থাকতে!

১৯৯ রানের অনেক বড় লক্ষ্য অবশ্যই। তবে টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলা চিটাগংকে নিশ্চিত আত্মবিশ্বাস জোগাবে চট্টগ্রামের ব্যাটিং-বান্ধব উইকেট, রাতের শিশির আর স্বাগতিক দর্শকদের সমর্থন।