মাশরাফির চাওয়াতে দলে সাব্বির

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

এই আমার দেশ ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে নতুন বছরের ক্রিকেট যাত্রা শুরু হবে বাংলাদেশ দলের। সফরটা কঠিন। বছরটাও। এ বছরেই বসছে ক্রিকেট বিশ্বকাপের আসর। ইংল্যান্ডে বলে বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জিং হবে ওটাও। নিউজিল্যান্ড সিরিজ দিয়ে তাই বিশ্বকাপ চিন্তা শুরু করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সেই হিসেবে ঘোষিত হয়েছে ওয়ানডে সিরিজের দল। সাব্বির রহমানের অর্ন্তভুক্তি কিংবা ইমরুলের বাদ পড়ার কারণ ওটাই। বিসিবি’র প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিনের বক্তব্য এমনই।

এরমধ্যে সাব্বির রহমানের দলে ঢোকা নিয়ে আছে বেশ প্রশ্ন। প্রথম প্রশ্ন তার নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়নি এখনও। দ্বিতীয় প্রশ্ন বিপিএলে তার ফর্ম আহামরী নয়। তবে কেনো দলে তিনি। নান্নু দুই প্রশ্নের একটাই উত্তর দিতে চেয়েছেন, ‘অধিনায়কের পছন্দ’। বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা দলে চেয়েছেন সাব্বিরকে। তাহলে নিষেধাজ্ঞার কি হলো?

মিনহাজুল আবেদিন জানালেন, তা একমাস কমানো হয়েছে। এটা অবশ্য একদিন আগেই জানা গেছে। শাস্তি কমার কারণ হিসেবে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘ডিসিপ্লিনারি কমিটির সিদ্ধান্ত এটি। সাব্বির ৩১ জানুয়ারি থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবে।’ নিষেধাজ্ঞা না হয় তুলে নেওয়া হলো। কিন্তু তার দলে ঢোকার ক্ষেত্রে কোন পারফর্ম বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে, সেটিও ছোট প্রশ্ন নয়।

চলতি বিপিএলে সিলেটের হয়ে সাত ম্যাচে ১৪১ রান তার নামের পাশে। এরমধ্যে ছয়টিতে করেছেন ৫৬ রান। বাকি ম্যাচটায় ৫১ বলে ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছেন। ওই এক ইনিংসই যথেষ্ট? কারণ জানালেন প্রধান নির্বাচন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, ‘দলের অধিনায়ক খুব করে আমাদের কাছে সাব্বিরের দাবি জানিয়েছে। লোয়ার মিডলঅর্ডারে পেস বোলার সামলাতে পারে এমন কাউকে চাইছে ওরা।’

বিশ্বকাপ ও নিউজিল্যান্ড পরিকল্পনায় সাব্বির দলে। অধিনায়ক যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী সাব্বিরকে নিয়ে। দেখা যাক। আমিও আশাবাদী সে ফিরে আসবে।’