ফাগুনের আগুন হাওয়ায় ডিএমপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন!

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

বসন্ত বাতাসে ডিএমপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী- তা উদযাপন করতে পথ চারীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে ডিএমপি পুলিশ আবারো সকলকে মনে করিয়ে দিচ্ছে পুলিশ জনগণের বন্ধু। ছবিগুলো তুলেছেন- আমাদের স্টাফ রিপোর্টার রাজিবুল হক রনি।

রাজিবুল হক রনি : ফাগুনের উদাস হাওয়ায় বাঁধন ছিঁড়েছে প্রাণ। বাঁধন ছেঁড়া প্রাণ আজ বুঝি উড়ু উড়ু। ফাগুনের অগ্নি ধারায় আপনকেও হারালো মন। হারানো মন ঘুরছে ফাগুন রাঙা বনে বনে।

আজ ১ ফাল্গুন, প্রকৃতি সাজে নবরূপে। শিমুল-পলাশে মিতালী করে, বসন্ত তার নিজ রূপ মেলে ধরে।

বছর ঘুরে আবারও এসেছে ফাগুন। ষড়ঋতুর বাংলায় বসন্তের রাজত্ব একেবারে প্রকৃত সিদ্ধ। ঋতুরাজ বসন্তের বর্ণনা কোনো রঙতুলির আঁচড়ে শেষ হয় না। কোনো কবি-সাহিত্যিক বসন্তের রূপের বর্ণনায় নিজেকে তৃপ্ত করতে পারেন না। তবুও বসন্ত বন্দনায় প্রকৃতিপ্রেমীদের চেষ্টার যেন অন্ত থাকে না।

ঠিক এই দিনেই আজ ১৩ ফেব্রুয়ারি ছিল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। দিবসটি উদযাপনে নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছিল ডিএমপি।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে এক নাগরিক সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি, প্রধান অতিথি এবং ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার), ইন্সপেক্টর জেনারেল বাংলাদেশ পুলিশ ও মোস্তফা কামাল উদ্দীন, সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিকাল তিনটায় ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্স থেকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস পর্যন্ত বর্ণাঢ্য র‌্যালি, প্রতিষ্ঠা দিবস উদ্বোধন, ডকুমেন্টারি প্রদর্শনসহ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শান্তি শপথে বলীয়ান এই মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে ডিএমপি জননিরাপত্তা বিধান ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করে আসছে। বাংলাদেশ পুলিশের বৃহৎ ইউনিট ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ১৯৭৬ সাল হতে জনবহুল রাজধানী ঢাকা মহানগরের আইন শৃঙ্খলা রক্ষা এবং অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে নিরলসভাবে কাজ করছে। প্রযুক্তিগত দক্ষতা এবং পেশাগত জ্ঞান অর্জনকে প্রাধান্য দিয়ে, সৃজনশীলতা এবং জন অংশীদারিত্বকে অন্যতম কার্যকৌশল হিসেবে গ্রহণ করে বহুমাত্রিক এ নগরের আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও জননিরাপত্তা বিধানে সচেষ্ট ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

মাত্র ১২টি থানা নিয়ে ১৯৭৬ সালে গঠিত ডিএমপি বর্তমানে ৫০টি থানার মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। সচিব পদমর্যাদার একজন অতিরিক্ত আইজি কমিশনার হিসেবে বৃহৎ এ সংস্থার হাল ধরে আছেন। তার অধীনে কাজ করছেন ৫ জন অতিরিক্ত কমিশনার (ডিআইজি), ১০ জন যুগ্ম কমিশনার (অতি: ডিআইজি), ৪৪ জন উপ-পুলিশ কমিশনার (এসপি), ৮৬ জন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অতি: এসপি), ১৯২ জন সহকারী পুলিশ কমিশনার (এএসপি), ৬৪৩ জন ইন্সপেক্টর, ২,৯৮৬ জন সাব ইন্সপেক্টর, ৪,০৬১ জন এ্যাসিস্টেন্ট সাব ইন্সপেক্টর, ১,৩৪৫ জন নায়েক ও ২০,৫৩০ জন কনস্টবল। ৩০,৫৪৫ জন অফিসার ও ফোর্সের সমন্বয়ে গঠিত সংস্থাটি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদেয়ের নেতৃত্বে সফলতার সাথে তার অর্পিত দায়িত্ব পালন করছে। সূত্র : ডিএমপি নিউজ।