পরী-কায়েসে আগ্রহ

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

এই আমার দেশ ডেস্ক : পরীমনি ও কায়েস আরজু জুটির নতুন ছবি ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’। বেশ কয়েকবার মুক্তির ঘোষণা দিয়েও পিছিয়ে গেছে ছবিটি। এবার আর তেমনটি হচ্ছে না বলে জানালেন ছবিটির পরিচালক শামীমুল ইসলাম শামীম। ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে মহাসমারোহে মুক্তি পাবে ছবিটি। এ ঘোষণায় কোন রকম হেরফের হবে না আর।

গল্পই এই ছবির প্রাণ। পুরো ছবিতে দর্শক বিনোদন খুঁজে পাবেন। সেই সঙ্গে পাবেন হাসি আনন্দ। পরীমনি আর কায়েস আরজুর অভিনয় সবার কাছে উপভোগ্য হবে বলেওে আশাবদ ব্যক্ত করলেন পরিচালক শামীম।

এদিকে দীর্ঘদিন পর প্রেক্ষাগৃহে পরীমনির ছবি আসায় হলমালিকদের মাঝেও ছবিটি প্রদর্শনের বিষয়ে আগ্রহ দেখা গেছে। সেই আগ্ররে কারণেই ইতোমধ্যে দেশের বড় বড় হলগুলোতে নিশ্চিত হয়েছে ছবিটি। ঢাকার মধুমিতা, বলাকা, শ্যামলী সিনেপ্লেক্স, যমুনা ব্লকবাস্টার, পুনম, এশিয়া, চিত্রমহল,চম্পাকলি, বর্ষা,আনন্দ, সৈনিক ক্লাব ও রাজমনী হলে শুক্রবার থেকে দর্শক দেখতে পারবেন পরী-আরজুর রোমান্স।

‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’ ছবির একটি দৃশ্য

শুক্রবার থেকে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী হল মধুমিতাতেও চলবে ‘আমারে প্রেম আমার প্রিয়া’ । ছবিটি নেয়ার আগ্রহের বিষেয়ে মধুমিতা হলের মালিক ও চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, অনেক দিন পরমনীর ছবি মুক্তি পাচ্ছে। তার উপর ছবিটির গল্প আমার পছন্দ হয়েছে। মনে হয়েছে এ ধরনের গল্প দর্শকরা দেখতে হলে আসবেন। যতক্ষণ হলে থাকবেন ততক্ষণ বিনোদিত হবে।

ঢাকার বাইরে যশোরের মনিহার, খুলনার লিবার্টি ও সঙ্গীতা, চট্টগ্রামের আলমাস ও সিলভার স্ক্রিণ, পাবনার রূপকথা, রংপুরের শাপলা, টাঙ্গাইলের মালঞ্চ, ময়মনসিংহের পূরবী, দিনাজপুরের মর্ডান,ফরিদপুরের বনলতা ও বগুরার সোনিয়াসহ মোট ৩০টি নিশ্চিত বুকিং নিশ্চিত হয়েছে।

সোমবার সকাল ১১টা নাগাদ মোটি ৩০টি হলের কথাই জানিয়েছেন পরিচালক। শুক্রবারের আগে হল সংখ্যা আরও বাড়বে বলেও জানান তিনি। পরীমনির একটা দর্শক তৈরি হয়েছে। দর্শকদের তাদের চাহিদার কথা মাথায় রেখেই সিনেমাটির প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছেন- হল মালিকরা। অন্যদিকে ছবিটির গল্পটিও হল মালিকদের ভালো লেগেছে বলেই হল মালিকরা নিতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। মন্তব্য পরিচালকের।

ছবিটির নায়ক কায়েস আরজু বলেন, ‘এই ছবিটি একদমই নতুন। মনে হয় আপনাদের কাছেও তাই মনে হবে। সবাইকে দেখার আমন্ত্রণ রইল।’ অন্যদিকে পরীমণি জানান, “যারা ‘স্বপ্নজাল’ রিলিজের পর দীর্ঘ একটা সময় ধরে অপেক্ষায় ছিলেন আমার নতুন ছবির জন্য, তাদের আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হবে না।” কমেডি, রোমান্স ধাঁচের ছবিটির কাহিনী লিখেছেন আবদুল্লাহ জহির বাবু। সংলাপ, চিত্রনাট্য করেছেন পরিচালক নিজেই।