ঝিনাইদহের ৬ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন চান আ্.লীগ-যুবলীগের আট তরুণ নেতা

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঝিনাইদহের ছয় উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের আটজন তরুণ নেতা প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে গণসংযোগে মাঠে নেমেছেন। তাঁরা হলেন ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হাকিম আহমেদ, আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক অশোক কুমার ধর, উপদপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসাইন, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আশফাক মাহমুদ জন, কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মতিয়ার রহমান মতি, কোটচাঁদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাজাহান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মীর সুলতানুজ্জামান লিটন ও মহেশপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আসাদুল ইসলাম আসাদ।

এসব তরুণের মধ্যে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দলীয় মনোনয়নের আশায় গণসংযোগ করছেন অশোক কুমার ধর ও আশফাক মাহমুদ জন। ১৯৮৪ সালে ছাত্রলীগে যুক্ত হন অশোক কুমার। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ২০০২ সালে তৎকালীন বিএনপি সরকারের সময় ব্যাপক নির্যাতনের শিকার হন তিনি। হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে তাঁর হাত-পা ভেঙে দেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের এ উন্নয়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে মানুষের জন্য কাজ করতে চাই।’

আশফাক মাহমুদ জন ১৯৮৯ সালে ঢাকা কলেজে ভর্তি হয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু করেন। এরপর ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ একাধিক পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক তিনি।

শৈলকুপা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নের প্রত্যাশায় ব্যাপকভাবে গণসংযোগ করছেন তরুণ নেতা আব্দুল হাকিম আহমেদ। তিনি ১৯৮০ সালে ছাত্রলীগে যোগ দেন। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। হাকিম বলেন, সমাজ থেকে অনিয়ম-দুর্নীতি, অন্যায়-অত্যাচার দূর করতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

হরিণাকুণ্ডু উপজেলায় দলীয় মনোনয়নের আশায় গণসংযোগ করে যাচ্ছেন জাহাঙ্গীর হোসাইন। ১৯৯৩ সালে ছাত্রলীগে যোগ দেন। এরপর কলেজ পেরিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সহদপ্তর সম্পাদক। তিনি হরিণাকুণ্ডু উপজেলায় নৌকা প্রতীকে মনোনয়নপ্রত্যাশী।

কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহামন। ১৯৮৩ ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন তিনি। বর্তমানে কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন। এবার চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পেতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের আশায় কাজ করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাজান আলী।

মহেশপুর উপজেলায় দুই তরুণ নেতা দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার আশায় এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেছেন। এর মধ্যে মীর সুলতানুজ্জামান লিটন ১৯৯০ সালে ছাত্রলীগে যোগদানের মাধ্যমে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য তিনি। তা ছাড়া ১৯৯৬ সালে মহেশপুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সমাজসেবা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার মাধ্যমে রাজনীতিতে যুক্ত হন।

ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু জানান, অনেকেই মনোনয়নপ্রত্যাশী রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অনেক তরুণও রয়েছেন। স্ব-স্ব উপজেলা কমিটি স্থানীয়ভাবে আলোচনার মাধ্যমে একটি তালিকা করে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আশা করি, মনোনয়ন যেই পাবেন, অন্যরা তাঁর পক্ষেই কাজ করবেন।