ছাত্রকে শতবারেরও বেশি ‘ধর্ষণ’ ৩৮ বছর বয়সী শিক্ষিকার!

ডেস্ক রিপোর্ট : জোর করে বারবার ছাত্রকে যৌনতায় বাধ্য করার অভিযোগে ৩৮ বছর বয়সী এক শিক্ষিকাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানের পাবলিক স্কুলের (বিশেষ শিক্ষা) শিক্ষিকাকে তিন দিনের প্রাথমিক পরীক্ষার পর বিচার স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

৩৮ বছর বয়সী হেদার উইনফিল্ডের বিরুদ্ধে শিশুর সঙ্গে যৌনতা, অপরাধমূলক যৌন আচরণ, অনৈতিক উদ্দেশ্যে অপ্রাপ্তবয়স্কদের ব্যবহার করা এবং একটি কম্পিউটার ব্যবহার করে অপরাধ সংঘটিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার জেল হতে পারে।

ফ্লোরিডা টুডে নিউজে বলা হয়, গত শুক্রবার অভিযুক্ত, সাক্ষ্যি এবং বর্তমানে ১৪ বছর বয়সী ওই নির্যাতিত প্রতিবন্ধী কিশোরকে আদালতে হাজির করা হয়।

নির্যাতিত ওই কিশোর জানায়, যখন তার ১১ বছর বয়স তখন থেকে তিন সন্তানের মা ওই নারীর সঙ্গে এই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আর এর পর থেকে হোটেলে ওই নারীর সঙ্গে ১০০ বারেরও বেশি যৌনতায় লিপ্ত হয় সে।

ফ্লোরিডা ও টেনেসিতে পারিবারিক ছুটিতেও ছাত্রকে সঙ্গে নিয়ে গিয়ে যৌনতায় বাধ্য করত উইনফিল্ড-তদন্তকারীদের বলেছে প্রতিবন্ধী ওই কিশোর। নিগ্রহের ছবি ও ভিডিও তার কাছে রয়েছে বলেও দাবি করেছে সে।

ফেসবুকে উইনফিল্ডের মেসেজ দেখে বয়ফ্রেন্ডকে পুলিশের কাছে নিয়ে যায় ওই কিশোরের বান্ধবী। অভিযোগের পরই উইনফিল্ডকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। তার বিরুদ্ধে মামলা চলছে আদালতে। এদিকে ছাত্রের সঙ্গে যৌনতার সব অভিযোগই অস্বীকার করেছে ওই শিক্ষিকা।