কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে হাতজোড় করে ক্ষমা চাইলেন এমপি ফারুক

রাজশাহী ব্যুরোঃ রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে কেন্দ্র করে গত ৮ নভেম্বর ঢাকায কেন্দ্রীয নেতাদের উপস্থিতিতে সভা অনুষ্ঠিত হয। ওই সভায রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে ক্ষমা চান বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এর মধ্যে ওমর ফারুক চৌধুরীর ক্ষমা চাওযার ছবিটি ভাইরাল হযে পডে গতকাল শনিবার থেকে। সম্প্রতি রাজশাহী জেলা আওযামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী কে রাজাকারপুত্র বলে অভিহিত করেন। অন্যদিকে জেলা আওযামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী আসাদের বিরুদ্ধে বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ করেন এ নিয়ে দুজনের মধ্যে দ্বন্ড প্রকাশ্যে আসে। এ বিরোধের জের ধরে গত ১৩ বর রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত বিভাগীয প্রতিনিধি সমাবেশ রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের সভাপতি সেক্রেটারি কাউকেই বক্তব্য দিতে দেযা হযনি। এরপর ওই দিনই সিদ্ধান্ত হয ৮ নভেম্বর ঢাকায এ নিযে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ওই বৈঠকে রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের পরবর্তী বিষযে সিদ্ধান্ত নেযা হবে সেই জেলা আওযামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে কেন্দ্র করে গত ৮ নভেম্বর ঢাকায একটি কেন্দ্রীয নেতাদের উপস্থিতিতে সভা অনুষ্ঠিত হয। ওই বৈঠকে জানানো হয়, আগামী ৪ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সভায় নিজেদের মধ্যে কোন্দলের জের ধরে সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ দুজনেই ক্ষমা চান কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে। তবে ভাইরাল হয় ওমর ফারুক চৌধুরীর ক্ষমা চাওয়ার ছবিটি। ওই সভায় রাজশাহী জেলা আওযামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে ক্ষমা চান বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এর মধ্যে ওমর ফারুক চৌধুরীর ক্ষমা চাওযার ছবিটি ভাইরাল হয়ে পয়ে শনিবার থেকে। সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডাঃ দীপু মনি, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, নুরুল ইসলাম ঠা-ু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।