কুমিল্লা, মুরাদনগরে গৃহবধূকে শ্বাসরোধে করে হত্যার অভিযোগ, শশুর শাশুড়ি আটক

তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধি, মোঃ রমিজ উদ্দিন : কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউ পি, লক্ষিপুর গ্রামে (লোহাগাড়া) সুমি আক্তার (২৩) নামে এক গৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শশুর শাশুড়ির বিরুদ্ধে। পারিবারিক কলহে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে গৃহবধুর পরিবারের।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রবিবার (৯ জুন) গৃহবধূ সুমি আক্তার স্বামীর নিজ ঘরে হত্যাকান্ডটি ঘটেছে। পুলিশ লাস উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিছেন। ঘটনার পর শশুর গিয়াস উদ্দিন ও শাশুড়ি নাছিমা আক্তার শাহিনা আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় গৃহবধূর সুমির ভাই জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে শশুর গিয়াস উদ্দিন শাশুড়ী নাছিমা আক্তার শাহিন ও ছেলে সাইফুল ইসলাম খায়ের বিরুদ্ধে মুরাদনগর থানায় মামলা করেছেন। শশুর ও শাশুড়িকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করলে সুমির স্বামী সাইফুল ইসলাম খায়ের পালাতক রয়েছে বিষয়টি জানিয়েছেন মুরাদনগর থানা সাব ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) শ্রী বিমল দাস বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে।

সুমির মা সাহারা খাতুন বলেন, মুরাদনগর উপজেলা পাহাড়পুর ইউনিয়ন লক্ষীপুর লোহাগারা গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে সৌদি প্রবাসী মো:সাইফুল ইসলাম খায়ের সাথে তিতাস ভিটিকান্দি মানিককান্দি গ্রামের রবিউল ইসলামের মেয়ে সুমি আক্তার বিয়ে হয় ২০২২ সালে। তাদের সাদিয়া নূর (৯মাস) সাব্বির রহমান (৪) নামে এক ছেলে এক মেয়ে রয়েছে। সুমিকে হত্যার ১৫ দিনের পূর্বেও যখন নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বাপের বাড়িতে চলে আসলে আমার বাবা রবিউল ইসলাম বুঝিয়ে সুমির শশুর বাড়িতে পাঠালে ১৫ দিন পর ৯ জুন সকাল ৮ টায় তাকে গলা টিপে হত্যা করে শাশুরী নাছিমা আক্তার শাহিনা নাটক সাজিয়েছেন।