কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

দৈনিক এই আমার দেশ দৈনিক এই আমার দেশ

কক্সবাজার সংবাদদাতা : র‌্যাব-৭ টেকনাফ ক্যাম্প ইনচার্জ লে. মীর্জা সাহেদ জানিয়েছেন, কক্সবাজারের টেকনাফ ও মহেশখালী উপজেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী এবং মহেশখালীতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কথিত ১ ডাকাত নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে এসব ঘটনা ঘটে। এ সময় অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে।

ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল বৃহস্পতিবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের বাহারছড়াঘাট এলাকায় অভিযানে যায়। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে ইয়াবা কারবারীরা। র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়লে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে দুই যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে তারা মারা যায়। নিহতদের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, ২টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ওয়ান শ্যুটারগান ও ১৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

টেকনাফ থানা পুলিশের সহায়তায় নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠোনো হয়েছে।

অপরদিকে, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নে অভিযান যায় পুলিশের একটি দল। ডাকাতদের একটি দল মাতারবাড়ি সড়কের প্রবেশ পথে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে খবর পেয়ে ওই স্থানে অভিযানে যায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। ঘণ্টাব্যাপি ‘বন্দুকযুদ্ধের’ পর এক পর্যায়ে ডাকাতদল পিছু হটে গেলে ঘটনাস্থলে হেলাল উদ্দিন (৩০) নামে এক যুবককে আহত অবস্থায় পাওয়া যায়। মহেশখালী উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি জানান, নিহত হেলাল একজন চিহ্নিত ডাকাত। তার বিরুদ্ধে হত্যা সহ ১৪টি মামলা রয়েছে।