ওয়েলিংটন টেস্টেও ইনিংস ব্যবধানে হারলো বাংলাদেশ

ওয়েলিংটন টেস্টেও বাংলাদেশকে ইনিংস ব্যবধানে হারাল নিউজিল্যান্ড। টেস্টের দুইদিন বৃষ্টিতে ভেসে গেলেও পরাজয় এড়াতে ব্যর্থ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। যার ফলাফল ইনিংস এবং ১২ রানের পরাজয়। টেস্টের চতুর্থদিন এক সেশনেই অলআউট হয় সফরকারীরা।

এই জয়ের মাধ্যমে টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়েই দুই নম্বর দলটি নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। পাশাপাশি তিন ম্যাচের সিরিজ ২-০ তে জিতে গেল স্বাগতিকরা। সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ টেস্টে আগামী ১৬ মার্চ আবারও কিউইদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

ম্যাচের সোয়া দুইদিন ভেসে যাওয়ার পরে তৃতীয় দিন মাঠে গড়ায় ওয়েলিংটন টেস্ট। প্রথম ইনিংসে টসে ব্যাট করতে নেমে ২১১ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। বিপরীতে প্রথম ইনিংসে নেমে ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ৪৩২ রান সংগ্রহ করে ২২১ রানের লিড নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিকরা।

এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ব্যর্থ বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। তামিম, সাদমান এবং মুমিনুল ফেরার পর ৩ উইকেটে ৮০ রানে তৃতীয় দিন শেষ করে নিউজিল্যান্ড। টিকে থাকার লড়াইয়ে শেষ দিনও পথ হারায় বোল্ট-ওয়াগনারের গতিতে। ইনিংসের একমাত্র ফিফটি এসেছে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে। ফিফটি জুটিও ছিল কেবল একটিই। আশা জাগানিয়া শুরু করেন সৌম্য-মিথুন। গড়েন ৫৭ রানের জুটি। সেই জুটি ভেঙে প্রতিরোধ ভাঙেন বোল্ট। অফ স্টাম্প ঘেষা বাড়তি লাফানো ডেলিভারিতে শরীর থেকে দূরে খেলে স্লিপে ক্যাচ দেন সৌম্য।

এরপর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৬৭ রান করে তিনি ফিরলে একে একে ব্যর্থতার পরিচয় দেন লিটন-তাইজুলরা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন মাহমুদউল্লাহ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৭ রান আসে মিথুনের ব্যাট থেকে।

ইনিংসে ৫ আর ম্যাচে ৯ উইকেট নিলেন করলেন ওয়েগনার। ইনিংসে ৪টিসহ ম্যাচে বোল্টের শিকার ৭টি। তবে ডাবল সেঞ্চুরি করে ম্যাচের সেরা রস টেইলর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ২১১

নিউ জিল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৪৩২/৬ (ইনিংস ঘোষণা)

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ৫৬ ওভারে ২০৯ (আগের দিন ৮০/৩) (মিঠুন ৪৭, সৌম্য ২৮, মাহমুদউল্লাহ ৬৭, লিটন ১, তাইজুল ০, মুস্তাফিজ ১৬, আবু জায়েদ ০*, ইবাদত ০; বোল্ট ৪/৫২, হেনরি ১/৪০, ওয়েগনার ৫/৪৫)।

ফল: নিউ জিল্যান্ড ইনিংস ও ১২ রানে জয়ী

সিরিজ: ৩ ম্যাচ সিরিজে নিউ জিল্যান্ড ২-০তে এগিয়ে

ম্যান অব দা ম্যাচ: রস টেইলর