আগুনে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

মোঃ সালাউদ্দিন:-খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা উপজেলার ২নংহাফছড়ি ইউনিয়নের ০১ ও ০২নং ওয়ার্ডের সিমান্তে জালিয়াপাড়া হাফছড়ি এলাকায় বিএনপি, জামায়াতের জনবিরোধী হরতাল- অবরোধের নামে গাড়িতে অগ্নি সংযোগের মাধ্যমে গাড়ির হেলপারকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ।

৪ ডিসেম্বর সকালে গুইমারা উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে গুইমারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও গুইমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেমং মারমার নেতৃত্বে বিএনপি, জামায়াতের জনবিরোধী হরতাল- অবরোধের নামে গাড়িতে অগ্নি সংযোগের মাধ্যমে গাড়ির হেলপারকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়।

সোমবার সকালে গুইমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্য্যালয় থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে দলীয় কার্য্যালয় এসে শেষ হয়।

বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে নেতাকর্মীরা বিভিন্ন ধরনের হুশিয়ারি স্লোগান দেয়।

গত ২৬ নভেম্বর দিনগত গভীর রাতে প্রশাসনের নিরলস তৎপরতাকে ফাঁকি দিয়ে হরতাল-অবরোধের সমর্থনে বিএনপি-জামায়াত কর্মীরা একটি মালবাহী ট্রাকে আগুন দেয়, এতে গুরুতরভাবে আহত হয় ট্রাকের ড্রাইভার ও হেলপারকে স্থানীয় লোকজন ও প্রশাসনের সহযোগীতায় প্রথমে মানিকছড়ি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়, অগ্নিদগ্ধ মোঃ বেলালের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরবর্তীতে তাকে ঢাকায় নেওয়া হয় সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন গুইমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু তাহের, সমীরণ পাল,সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম মীর, যুগ্ম সম্পাদক সুইমং মারমা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বিপ্লব কুমার শীল, জাতীয় শ্রমিক লীগ গুইমারা উপজেলা শাখার সভাপতি শুভাস দত্ত, সম্পাদক নুরুন্নবী চৌধুরী রুবেল, উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি রেজাউল করিম শুভ, সাধারণ সম্পাদক সাচিং মারমা, সাংগঠনিক সম্পাদক সজিব, হাফছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মফিজুল ইসলাম সহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী বৃন্দ।